Sunday, 1 September 2013

কলকাতা/ভারতীয় সিরিয়াল আর বাংলাদেশের কিশোর কিশোরির আচরন নিয়ে আমার ভাবনা মিল পরড়নতো বিষটা কী সত্য বলছি কিনা..

আমাদের পাশের দেশ ভারত ।পাশের দেশ হিসেবে সকল প্রকার সুবিধা আমাদের কাছ থেকে তারা ভোগ করছে বিনিময়ে আমরা কী পাচ্ছি ।কেবল টিভি চ্যানেল গুলোর কথাই ধরুন ,আমরা কী করছি ভারতের সকল হিন্দি ও কলকাতার বাংলা চ্যানেল গুলো অবাদে কোন প্রকার আইনি/যে কোন প্রকার বাধা ছাড়া সম্প্রচার করার সুযোগ করে দিচ্ছি,অথচ এর বিনিময়ে তারা আমার মনে হয় না আমাদের একটি চ্যানেল ও ভাল করে প্রচার করে ।
আর এর মাধ্যমে তারা আমাদের দেশ থেকে প্রতি বৎসর কোটি কোটি টাকা নিয়ে যাচ্ছে সুধু তাই নয় তাদের দেশের পণ্যের প্রচার দেখে আমরা তাদের পন্য ব্যবহার করার দিকে বেশি ঝুকছি ফলে আমাদের দেশীয় তৈরি পন্য প্রতি বছর হয় লোকসান/সিমিত ব্যবসা এর মধ্যে থাকছেএতে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ব্যাহত হচ্ছে।

অথচ আমাদের দেশ থেকে তেমন কোন কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি কেন সময় । একটা ব্যাপার চিন্তা করবেন ভারতের+বিশ্বের ভিবিন্ন দেশের সামান্য বা যত ছোট কোন খবর হোক বাংলাদেশে সকল মিডিয়ায় সেটা খোব গুরুত্বের সাথে প্রচার করা হয়, আজ পর্যন্ত কেউ কি বলতে পারবেন কলকাতার/হিন্দি কোন চ্যানেলে বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন বা কোন খবর প্রচার করেছে কীনা, যদি বিশ্বাস না হয় এই মূহুর্তে আপনি কলকাতার/হিন্দি চ্যানেল প্লে করতে পারেন।

যা হক,মনের আক্ষেপে অনেক কথা বলে ফেললাম,আজকে আমার আলেচনার মূল বিষয়টি হল এই যে বেশ কিছুদিন হল আমাদের মিডিয়ার উছিলায় জানতে পারতেছি যে কিশোর/কিশোরিদের চারিত্রিক অকক্ষয়ের চরম বিপর্যয় এর ফল বাংলাদেশের মিডিয়ায় প্রকাশ পাচ্ছে। আমরা একবার কী কিন্তা করে দেখেছি আমাদের পার্শবর্তি দেশ ভারতের সংস্কৃতির ভূত আমাদের দেশের ছেলে মেয়ে যুবসমাজ সহ পুর দেশে এখন চেপে বসেছে।তথাকথিত কিছু বুদ্ধিজিবিরা একে তথ্য ও যোগাযোগের স্বাধীনতা বলে উড়িয়ে দিচ্ছেন ,অথচ তিনি বা তারা একবার কী চিন্তা করেন না যে কলকাতার চ্যানেল গুলের ছোট/বড় পর্দার অনুষ্ঠান গোলো আমাদের ছেলে মেয়ে আর সংস্কৃতির উপর কী প্রভাব ফেলছে ।আজকে আমরা তাদের নাটক সিরিয়াল গোলুতে কী দেখছি,কী ভাবে কোন ভাল মানুষ কে খারাপ বানানু জায়
কী ভাবে একটি পরিবারে চকরান্ত করে অসান্তি সৃষ্টি করা জায়, কী ভাবে মা-বাবার দুর্বলতার সুযোগে তাদের প্রতারনা করে চুরি ডাকাতি করা ,মদ গাজা সহ,
ভিবিন্য নেশা করা,পিতা মাতা কোন প্রকার সাসন বারন করলে কেমন খারাপ ব্যাবহার করে তাদের দমানো যায় কি ভাবে ছেলে মেয়ে আবাদে মেলা মেশা করা যায় কোন বাদা আসলে কি কি খারাপ কাজের মাধ্যমে কি করতে হয় সম্পুর্ন নাটকী ভাবে এসকল বিষয় উপস্থাপন করে অবাধে প্রচার করছে ....আপনারা একটা বিষয় দেখবেন কলকাতার এসকল নাটকে প্রায় ৬-৮ মিনিট করে বিরতি দেয় আর একটা নষ্ট চরিত্র ফুটিয়ে তোলার জন্য ফ্লাশ এর মত করে একটি সিন অনেক বার প্রচার করা হয়। আর আমাদের পিতা-মাতারা বিষেশ করে মহিলারা এসকল অনোষ্ঠান না দেখলে গুম খাওয়া ভাল লাগে না দিনে অন্তত ৩ বার পুনঃ প্রচার হয় সংসারের কাজ ফেলে অনুষ্ঠান পুনঃপ্রচার বারবার দেখার চেষ্ঠা করে সুধু তাই নয় সমস্ত দিন এই সকল নাটকে আলোচনা করে ...........আর একটি খারাপ সুধু খারাপ নয়......দুঃচিন্তার বিষয় হল কোলের শিশু থেকে সুরু করে সন্তানদের নিয়ে এসকল অনুষ্ঠান দেখে রাত ১১-১২ টা পর্যন্ত .....অথচ মানোষের উপর সৃষ্টিকর্তার একটা আদেশ ইবাদাতের যে একটা দ্বায়িত্ব আছে তা সমস্ত দিনে একবার স্বরন করতে নারাজ

অবশেষে আমার একটি কথা আমি ভারত বিরুধী নই তবে তাদের সংস্কৃতি বিরুধী কারন আমি মনেকরি আমরা সভ্যজাতি আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি আছে আমরা আমাদের স্স্কৃতির চর্চা করব ।তারা ত আমাদের সংস্কৃতি চর্চা করেনা তবে কেন..............আমার লিখায় ভূল হলে বা কার মনে আঘাত লাগলে আমায় ক্ষমা করবেন আল্লাহাফেজ।

No comments:

Post a comment

thank you